“গণতন্ত্র আমাদের সংস্কৃতি” – মন কি বাতে স্মরণ করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

Share This
Tags

নয়াদিল্লি, ২৫ জুন  : গণতন্ত্র কোনও প্রথা নয়, তা আমাদের সংস্কৃতি…. স্বাধীনতা রক্ষায় সর্বক্ষণ নজরদারি চালাতেই হবে। ৩৩তম মন কি বাতে এভাবেই জরুরি অবস্থার দিনগুলি স্মরণ করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী । রবিবারের মন কি বাতে রথযাত্রা ও রমজ়ান উপলক্ষে দেশবাসীকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। প্রধানমন্ত্রী অভিনন্দন জানিয়েছেন ব্যাডমিন্টন তারকা কিদাম্বি শ্রীকান্তকে।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বর্তমানে তিন দেশের সফরে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে রয়েছেন। তবে দেশের বাইরে থাকলেও ২৫ জুন সম্প্রচারিত হয় তাঁর ‘মন কি বাত’ অনুষ্ঠান। এদিনের মন কি বাতে প্রয়াত প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীর নির্দেশে জারি হওয়া “জরুরি অবস্থা”কে  কটাক্ষ করেন প্রধানমন্ত্রী । তিনি বলেন, যাঁরা গণতন্ত্রকে ভালোবাসেন, তাঁরা কোনওদিনও ১৯৭৫ সালের ২৫ জুনের কালো রাতকে ভুলতে পারবেন না। বলেন, গণতন্ত্রকে রক্ষা করতে সেদিন দেশবাসী ঐক্যবদ্ধভাবে যেভাবে এর মোকাবিলা করেছিলেন সেভাবেই জরুরি অবস্থাকে মনে রাখা হবে। জয়প্রকাশ নারায়ণের সঙ্গে বহু নামী নেতা সে সময় জেলবন্দি হন। বিচারব্যবস্থাও তার হাত এড়াতে পারেনি। সংবাদমাধ্যমের কণ্ঠ সম্পূর্ণ রোধ হয়। তাই গণতন্ত্রের প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে মানুষকে ওয়াকিবহাল করা উচিত বলে মন্তব্য করেন তিনি। বলেন, গণতন্ত্র কোনও প্রথা নয়, তা আমাদের সংস্কৃতি…. স্বাধীনতা রক্ষায় সর্বক্ষণ নজরদারি চালাতেই হবে।

৩৩তম এই মন কি বাতে রথযাত্রা ও রমজ়ান উপলক্ষে দেশবাসীকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।অস্ট্রেলিয়ান ওপেন সুপার সিরিজ জয় করায় প্রধানমন্ত্রী অভিনন্দন জানিয়েছেন ব্যাডমিন্টন তারকা কিদাম্বি শ্রীকান্তকে। বলেছেন, একের পর এক সুপার সিরিজ জিতে দেশকে গর্বিত করেছেন তিনি। তাঁর কথায়, ভারতীয় যুবসমাজ আগের থেকে অনেক বেশি করে খেলাধুলোয় যোগ দিচ্ছে। ছেলেমেয়েরা খেলার জগতে কেরিয়ার গড়ে তুলতে চাইলে তাদের উৎসাহ দেওয়া উচিত বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি।

স্বচ্ছ ভারত অভিযান নিয়েও এদিনের অনুষ্ঠানে বক্তব্য রেখেছেন মোদী। তিনি বলেন, “এই কর্মকাণ্ড এখন শুধু সরকারের মধ্যে সীমাবদ্ধ নেই। এই অভিযান এখন জনতা দরবারে পৌঁছে গেছে। দেশকে স্বচ্ছ রাখতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে এই অভিযানে সামিল হতে হবে। এজন্য উত্তরপ্রদেশের বিজনর গ্রামের বাসিন্দাদের প্রশংসা করে তিনি বলেন, “শৌচালয় তৈরি করতে সরকারের কাছ থেকে তাঁরা কোনও আর্থিক সহায়তা নেননি। সম্পূর্ণ নিজেদের খরচে বাড়িতে বাড়িতে শৌচালয় তৈরি করেছেন তাঁরা। পবিত্র রমজ়ান মাসে তাঁরা যে উদ্যোগ নিয়েছেন, তা সত্যিই আমার হৃদয় ছুঁয়ে গেছে।”

এদিনের মন কি বাতে তিনি আরও বলেন, সারা বিশ্ব যোগদিবস পালন করেছে নিজের মতো করে । তিনি জানান,  ‘জীবনে প্রথমবার বৃষ্টির মধ্যে যোগাসন করলাম’ । ব্রিটেনের রানী এলিজাবেথের সঙ্গে দেখা করার প্রসঙ্গও উল্লেখ করেন  মোদী, রানী যে খাদির  পোশাক পছন্দ করেন, সেকথাও জানান প্রধানমন্ত্রী। ইজিএম ও মুদ্রা প্রকল্পের সুবিধার কথা বলেন মোদী। ইজিএম এর মাধ্যমে ভারত সরকারের কাছে যেকোনও দ্রব্য সরবরাহ করা যাবে। বাল্ব থেকে চেয়ার সমস্ত কিছুই সরকারের কাছে পৌঁছে যাবে। এখানে কোনও দালাল না থাকায়, জিনিসের সঠিক মূল্য পেয়ে যান বিক্রেতারা।  পিএসএলভি উৎক্ষেপণের বিষয়ে ইসরো-র প্রশংসা করেন প্রধানমন্ত্রী।

About the Author