কেরি লাম হংকং-এর নতুন নেত্রী

Share This
Tags

 

 বেজিং : বিক্ষিপ্ত বিক্ষোভের মধ্যেই হংকং-এর নতুন নেত্রী হিসেবে  কেরি লাম শপথ নিলেন |  তাঁকে শপথবাক্য পাঠ করান চিনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং| সরকারি কর্মী লাম বেজিং সমর্থিত প্রার্থী হিসেবে গত মার্চে নির্বাচন কমিটির ভোটে জেতেন| চিনপন্থী ১২০০ সদস্য লামকে ভোট দেন|

 ব্রিটেনের হাত থেকে ক্ষমতা হস্তান্তরের ২০ বছর পূর্তি দিবসে শপথগ্রহণের সময়ই অনুষ্ঠানহলের বাইরে হংকং-এ গণতন্ত্রের দাবিতে বিক্ষোভ দেখান একদল মানু্ষ| তাঁদের অভিযোগ, ব্রিটেনের কাছ থেকে ক্ষমতা হস্তান্তরের সময় হওয়া এক রাষ্ট্র, ২ ব্যবস্থা চুক্তি মানছে না চিন| হংকংএর স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ করছে| তাঁদের বিক্ষোভের পাল্টা হিসেবে চিনপন্থীরা চিনের নামে জয়ধ্বনি দিয়ে স্লোগান দেন| পুলিশ কয়েকশো বিক্ষোভকারীকে আটক করেছে| এদিন লামের শপথগ্রহণের পর বিক্ষোভকারীদের উদ্দেশে কড়া বার্তা দিয়ে শি জিনপিং বলেন, চিনের নিরাপত্তা এবং সার্বভৌমত্বের সীমান্তরেখা লঙ্ঘন কখনওই মেনে নেওয়া হবে না| কেউ যদি হংকংএর সংবিধানের পক্ষে ক্ষতিকারক হয় বা চিনের মূলভূমিতে ঢোকার পথ হিসেবে হংকংকে ব্যবহার করতে চান তাদেরকেও ক্ষমা করা হবে না| জিনপিং আরও বলেন, এদিন হংকংএর অনেক গণতান্ত্রিক অধিকার আছে যা আগে ছিল না|

 ১৯৯৭ সালের পয়লা জুলাই এক রাষ্ট্র, ২ ব্যবস্থা চুক্তিতে চিনকে হংকং ফিরিয়ে দেয় ব্রিটেন| এই চুক্তি অনুযায়ী, আগামী ৫০ বছর হংকং স্বশাসিত অঞ্চল থাকবে এবং বিচারব্যবস্থায় হস্তক্ষেপ করবে না  প্রশাসন| যা দেখা যায় না চিনে| এইভাবেই নিজস্ব শাসনব্যবস্থা নিয়ে চিনের অঙ্গ হয়েও গত ২০ বছর ধরে স্বতন্ত্র থেকেছে হংকং| কিন্তু ২০১৪ সালে হংকংকে সর্বজনীন ভোটাধিকারের ক্ষমতা দিতে চিন অস্বীকার করায় শুরু হয় চিন বিরোধী বিক্ষোভ, যা টানা ৩ মাস চলেছিল| তারপর থেকেই চিনের হস্তক্ষেপ নিয়ে সরব হংকংএর বাসিন্দাদের একাংশ|

About the Author