করোনা নিয়ন্ত্রন আনতে ময়দানে ৪০ হাজার কর্মী

Share This
Tags

সম্প্রতি এখনও পর্যন্ত ভারতে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহে ১১জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে । তার মধ্যে কেরলে এখন পর্যন্ত ৩ জনের শরীরে নোভেল করোনাভাইরাস শনাক্ত  করা গিয়েছে। সম্প্রতি পিনারাই বিজয়ন সরকার কেরলকে ‘রাজ্যের বিপর্যয়’ হিসাবে ঘোষণা করেছে । সম্প্রতি এই ৩ জন পড়ুয়া  কেরলের স্থানীয় বাসিন্দা এবং সম্প্রতি তারা চিনের উহান প্রদেশ থেকে ফিরেছেন । কিন্তু সবচাইতে সমস্যা হল, এই ৩ জনের সঙ্গে আপাতত যাঁরা সংস্পর্শে এসেছেন, তাঁদের চিহ্নিত করতে হিমশিম খাচ্ছে কেরল সরকার। স্বাস্থ্য দফতরের ৪০ হাজার কর্মী ময়দানে নেমে পড়েছেন। এবং সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছে স্বেচ্ছাসেবী সংস্থাগুলিও। স্বাস্থ্যমন্ত্রী কে কে শৈলাজা জানিয়েছেন, স্বাস্থ্য দফতরা ছাড়াও আরও ৪০টি দফতরের কর্মীদের করোনা মোকাবিলার কাজে নামানো হয়েছে। কেরলে করোনা আক্রান্ত ৩ জন কেরলের বিভিন্ন হাসাপাতালে ভর্তি রয়েছেন। আলাদা আলাদা ওয়ার্ডে তাঁদের চিকিত্সা চলছে। গত তিন দিনে আক্রান্ত রোগীর সঙ্গে যে ৮০ জন সংস্পর্শে এসেছেন, তাঁদের চিহ্নিত করে হাসপাতালে বিশেষ পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। এখনও পর্যন্ত দিল্লি, মুম্বই, চেন্নাই, কলকাতা-সহ দেশের বিভিন্ন বিমানবন্দরে ১২ হাজারেও বেশি চিন ফেরত যাত্রীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য় পাঠানো হয়েছে। সম্প্রতি জানা গিয়েছিল, সৌদি আরবের হাসপাতালে কর্মরত এক ভারতীয় নার্স করোনাভাইরাসে আক্রান্ত। সংবাদ মাধ্যম সূত্রে খবর, রাজ্যজুড়ে ২২৩০ জনের উপর নজরদারি চালাচ্ছে স্বাস্থ্য দফতর। এখনও পর্যন্ত বিভিন্ন হাসপাতালে ২৭টি আইসোলেশন ওয়ার্ড তৈরি করা হয়েছে। জেলা পিছু দুটি করে ওয়ার্ড প্রস্তুত রাখা হয়েছে । এখনও পর্যন্ত চিনে  করোনার ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে  ৪৫০ জনের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে  প্রায় ১৪ হাজার মানুষ। চিন ছাড়াও ২০টি দেশে করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে। এই পরিস্থিতিতে আন্তর্জাতিক স্বাস্থ্য জরুরী অবস্থা ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO)।

About the Author