Published On: সোম, ফেব্রু. 24th, 2020

আমি হৃৎপিণ্ড বলছি

Share This
Tags

ডাঃ সঞ্জয় কুমার মল্লিকঃ প্রিয় চিকিৎসকগন। পত্রের প্রথমেই আপনারা আমার আন্তরিক ভালোবাসা নেবেন।আমি অনেক দিন থেকেই একটা চিঠি আপনাদের উদ্যেশ্যে পাঠাবো পাঠাবো করে আজ সময় পেলাম।আজ আমি ডাঃ সঞ্জয় কুমার মল্লিক মহাশয়ের হাত দিয়ে এই চিঠিটি লিখিয়ে আপনাদের উদ্যেশ্যে পাঠালাম। বিষয়বস্তু একটু সংক্ষেপে।আমি হৃৎপিণ্ড বলছি,আমার অনেক বন্ধু খুবই কষ্টে আছে বলে আমায় জানাচ্ছে কারণ অনেকেই আজ খুবই অসুস্থতার মধ্যে দিন কাটাচ্ছে।একেতো আমাদের কোনো বিশ্রাম নেই শুধুই কাজ আর কাজ, একটু কম-বেশী।ভগবানের কাছে আমরা প্রতিজ্ঞাবদ্ধ প্রতিটি জীবের জীবনের শেষ সময় পর্যন্ত আমাদের কাজ করে যেতেই হবে।কোনো বিশ্রাম নেই,কোনো ধর্মঘট নেই।কারণ আমরা জীবের সেবাতে নিয়োজিত।ভগবান আমাদের একটি নিজস্ব শক্তি দিয়েছে যার ফলে আমরা কোন জীবের ইচ্ছা অনিচ্ছার ওপর কাজ করতে পারি না। কারণ আমাদের চালিকা শক্তি আমাদের মাথাতে(SA node) তৈরি হয়ে ( AV node>Bundles of His>Purkinje fibers)পা তে বিলীন হয়।যা প্রতিনিয়ত চক্রাকারে চলছে।

             এসবই ঠিক ছিল কিন্তু আজকাল  মানুষগুলোর অনেকেই এত চর্বি জাতীয় খাবার খাচ্ছে যে,আমাদের ভেতরের কক্ষ গুলো পিচ্ছিল হয়ে যাচ্ছে,কখনো আমাদের আষ্টে পিষ্টে চর্বি জড়িয়ে যাচ্ছে, কখনো শিরা ধমনীতে জমে যাচ্ছে। ফলে আমাদের কাজ করতে খুবই অসুবিধা হচ্ছে।আর রক্ত চলাচল ভালো না হলে সবাই আমাদেরই দোষ দিচ্ছে।বলছে,হার্টের দোষ হয়েছে।একেতো বিশ্রাম নেই তার ওপর বদনাম।তারপর বেশী লবন খাচ্ছে, সেও আমাকে উত্তেজিত করছে।কারণ বেশী লবণ খেলে বেশী ক্লোরিন আয়ন শরীরে প্রবেশ করে ও আমার পেশীর উত্তেজনা বাড়িয়ে দেয়,ফলে আমি নিজেকে সামলাতে পারি না।তাতে প্রেসার তো বাড়বেই।আবার চর্বিযুক্ত খাবার,লবনেও ক্ষান্ত নয় মিষ্টি খাবারও বেশী খাচ্ছে।বেশী মিষ্টি খাবার রক্তকে ভারী করে দেয় তাতেও সমস্যা,ভালো ভাবে রক্ত সারা শরীর থেকে টানতে শরীরে পাঠাতে পারি না।তার পর আছে জীবাণুদের অত্যাচার।জীবানুরা না হয় কথা শুনবে না কিন্তু আমাদের মালিক!তাদেরতো বোঝা উচিত আমি ভালো না থাকলে তাদের ভালো কি করে রাখব?সবই খাবে কিন্তু একটু মেপে খেলে ই তো হয়।কথায় কথায় শুধু বলে,খা তো যা হবার হবে।আবার পরে বলবে,হার্টের দোষ হয়েছে।কথাটা,যত দোষ নন্দঘোষের মতো শোনালো না?

            আপনাদের চিঠি পাঠানোর একটাই কারণ আমাদের কথা মালিক রা বোঝবে না বা গুরুত্ব দেয় না,আপনারা তো আমাদের সবই জানেন ,

তাছাড়া আপনারা বুঝিয়ে বললে একটু যদি শোনে। শুনলে আমাদের ও কষ্ট কমে,বদনামও সহ্য করতে হয় না।আমরাও চাই সবাই ভালো থাক।আপনারাও ভালো থাকুন, অন্যদের একটু সজাগ করুন।                   

                                            ইতি

                                  সব জীবের সাথী

                                         হৃৎপিণ্ড

About the Author