হাওড়া আমরা সবাই সংস্থার উদ্যোগে ইতু পুজোর আয়োজন করা হয়।

Share This
Tags

বাঙালির বারো মাসে তেরো পার্বণ। আর এই, বাঙালির সারা বছর জুড়েই চলে শিব, দুর্গা, কালী, লক্ষ্মী, সরস্বতী, গণেশ-সহ প্রধান দেবদেবীর পুজো, তার সঙ্গে থাকেন আবার বিভিন্ন আঞ্চলিক উপদেব দেবীর পুজও। এই উপ দেবদেবীদের মধ্যে ইতু পুজ প্রচলন এখন কিছু কিছু যায়গায় দেখা যায়। গ্রাম বাংলার মেয়েরা অগ্রহায়ণ মাসের প্রতি রবিবার ইতু ঠাকুরের পুজো করে থাকেন। ইতু পুজোর নিয়ম প্রসঙ্গে বলা হয়েছে কার্ত্তিক মাসের সংক্রান্তি থেকে অগ্রহায়ণ মাসের সংক্রান্তি পর্যন্ত পুজোর নিয়ম। অগ্রহায়ণ মাসের প্রতি রবিবারে পুজো করে সংক্রান্তির দিন পুজো সম্পাদন করতে হয়। অর্থাৎ ইতুকে বিসর্জন দিতে হয়। পারিবারিক নিয়ম ভেদে এই পুজো দুই ভাবে পালিত হতে পারে৷ প্রথমতঃ -কার্তিক মাসের সংক্রান্তি তে শুরু করে, অগ্রহায়ণ মাসের সব কটি রবিবার পালন করে, অগ্রহায়ণ সংক্রান্তি তে পুজো করে ব্রত উদযাপন করা যায়৷ অপরপক্ষে শুধুমাত্র অগ্রহায়ণ সংক্রান্তিতে ব্রত পালন ও উদযাপনও কোন কোন পরিবারের নিয়ম থাকে৷ একটি সুন্দর মাটির খোলাতে মাটি ভরে তার মধ্যে মান, কচু, কলমীলতা, হলুদ, আখ, শুষনি, সোনা ও রুপোর টোপর, জামাই-নাড়ু, শিবের জটা, কাজললতা রেখে ফুলের মালা, ধূপ-দ্বীপ-সিঁদুর প্রভৃতি পুজোর উপকরণ ও ফল-মিষ্টান্ন ও নবান্ন সহযোগে ইতু পূজা করা হয়। সম্প্রতি হাওড়া জেলার আমতা ১নম্বর ব্লক এর অন্তর্গত দক্ষিন হরিসপুর গ্রামের “আমরা সবাই” সংস্থার উদ্যোগে ইতু পুজর আয়োজন করা হয়। “আমরা সবাই” সংস্থা সম্প্রতি ৬ বছর ধরে এই পুজর আয়োজন করে আসছে। “আমরা সবাই” সংস্থা  এই ইতু পুজর মাধ্যমে সমাজের কিছু ইতি বাচক কার্যকলাপ করে থাকেন।যেমন সাধারণ মানুষকে কম্বল বিতরণ থেকে শুরু করে সমাজের অসহায় ও দুঃখস্ত মানুষদের দৈনন্দিন সামগ্রী দ্রব্য বিতরণ এবং শিশুদের শিক্ষা সামগ্রী ইত্যাদি।      

About the Author