খেলা-ধুলা ডিসপ্লে দেশের খবর ফিয়েচার

দ্রাবিড়ের বার্তা প্লেয়ারদের জন্য

সম্প্রতি দ্বীপরাষ্ট্রে তিন ম্যাচের ওয়ান ডে এবং তিন ম্যাচের টি-২০ সিরিজের জন্য ভারতীয় দল ঘোষণা করেছে বিসিসিআই। বিরাট কোহলি ও রোহিত শর্মার অনুপস্থিতিতে জুলাইয়ে শ্রীলঙ্কা সফরে ভারতীয় দলকে নেতৃত্ব দেবেন শিখর ধাওয়ান এবং কোচের ভূমিকায় দেখা যাবে রাহুল দ্রাবিড়কে। ইএসপিএন ক্রিকইনফো অনুসারে, রাহুল দ্রাবিড় বলেছিলেন, “আমি তাদের আগে থেকেই বলতাম যে আপনি যদি এ দলের সফরে আমার সাথে এসে থাকেন তবে আপনি এখান থেকে কোনও ম্যাচ না খেলে ছাড়বেন না। আমি যখন জুনিয়র স্তরে খেলতাম, তখন আমার নিজের অভিজ্ঞতা ছিল। ইন্ডিয়া এ দলের সফরে যেতে এবং ম্যাচ খেলার সুযোগ না পেয়ে খুব খারাপ লাগত।”তিনি বললেন, “তুমি ভাল করেছো। ৭০০-৮০০ রান করেছো। তুমি দলের সাথে যাও এবং সেখানে নিজের ক্ষমতা দেখানোর সুযোগ পাবে না। তারপরে নির্বাচকদের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে তোমাকে পরের মরসুমে আবারও ৮০০ রান করতে হবে।”

দ্রাবিড় বলেছিলেন, “এটি করা সহজ নয়, সুতরাং আবার চান্সের কোনও নিশ্চয়তা নেই। সুতরাং আপনাকে শুরুতে খেলোয়াড়দের বলতে হবে যে এই সেরা ১৫ জন খেলোয়াড় এবং আমরা তাদের সাথে খেলব। এমনকি সেরা একাদশ না হলেও। অনূর্ধ্ব ১৯ স্তরে, আমরা ম্যাচের মধ্যে পাঁচ থেকে ছয়টি পরিবর্তন করতে পারি।” দ্রাবিড় বলেছিলেন যে ভারতীয় ক্রিকেটাররা এখন বিশ্বের সেরা হিসাবে বিবেচিত হয়, তবে এমন এক সময় ছিল যখন তাদের কাছে প্রয়োজনীয় ফিটনেস জ্ঞান ছিল না এবং অস্ট্রেলিয়া এবং দক্ষিণ আফ্রিকার আরও বেশি খেলোয়াড়ের সাথে জ্বলে ওঠে। প্রথম দল যখন ইংল্যান্ডে পাঁচ ম্যাচের টেস্ট সিরিজের প্রস্তুতিতে মগ্ন থাকবে তখন দ্বিতীয় দলের শ্রীলঙ্কা সফরে যাবে। এমনটা গত মাসেই ঘোষণা করেছিলেন বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। স্বাভাবিকভাবেই জাতীয় দলে বেশ কিছু ক্রিকেটারের প্রত্যাবর্তনের সম্ভাওবনা উঁকি দিচ্ছিল, যাঁরা পারফরম্যান্সের কারণে সাম্প্রতিক অতীতে ব্রাত্য হয়েছিলেন। শ্রীলঙ্কা সফরের দলে তাই জায়গা পেলেন পৃথ্বী শ, মনীশ পান্ডে, কুলদীপ যাদবরা। একই সঙ্গে ঘরোয়া ক্রিকেট এবং আইপিএলের মতো মঞ্চে নিজেদের প্রমাণ করে দলে প্রথমবারের জন্য সুযোগ করে নিলেন কর্ণাটক ব্যাটসম্যান দেবদূত পারিক্কল, সৌরাষ্ট্রের তরুণ ফাস্ট বোলার চেতন সাকারিয়া এবং আইপিএলে কেকেআর-এর হয়ে খেলা নীতিশ রানা ও বরুণ চক্রবর্তী।

মন্তব্য করুন