ভ্রমণ

সাইকেলে এবং টো টো করে ঘুরতে পারবেন এমন কটি শহর

সাইকেলে করে ১২ বছর ধরে সারা বিশ্বভ্রমণের সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছে বাঙালি তথা প্রথম ভারতীয় ভূপর্যটক বিমল মুখোপাধ্যায়ের নাম। তবে সাইকেল নিয়ে এমনিতেই নস্টালজিক বাঙালি। লকডাউনে ঘরবন্দি মানুষের মন কাঁদছে কোথাও একটু শান্তিতে মনপ্রাণ দিয়ে ঘুরে আসতে। তবে সাইকেলে করে আপনি টো টো করে ঘুরতে পারবেন, এমন কয়েকটি শহরের তালিকা দেওয়া রইল এখানে

পুনে- মনোরম পরিবেশ, পারফেক্ট গেটওয়ে থেকে মুম্বইয়ের ব্যস্ততার জীবন উপভোগ করতে সাইকেলের জুড়ি মেলা ভার। মহারাষ্ট্রের সংস্কৃতি, সবুজে ঘেরা শহরের অনন্য হৃদয়ের কথা জানতে পারবেন এখানে।

উদয়পুর- রাজকীয়, ভারতীয় সংস্কৃতির ধারক এমন শহরের কথা ভাবলে প্রথমেই মাথায় আসে উদয়পুরের নাম। দেশেরে বেশি সংখ্যক রাজা-মহারাজার বাসস্থান ছিল এখানেই। রাজপুত ঘরানার দুর্গ, মরুরাজ্যের সংস্কৃতি, শহরের বুকের ধুকপুকানি শুনে হলে সাইকেল নিয়ে বেড়িয়ে পড়লেই হয়!

ভুবনেশ্বর- প্রাচীন মন্দিরের শহর বলতে বারাণসীর পরই ভুবনেশ্বরের কথা মনে আসে। দেশের অন্যতম পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন শহর হিসেবেও পরিচিত। অচেনা ভুবনেশ্বরেকে চিনতে সঙ্গী করে নিতে পারেন সাইকেলকে। অন্নত ৪০০টি সাইকেল পার্কিংয়ের স্টেশন রয়েছে এই শহরে। প্রাচীন শহরের ঐতিহাসিক স্থাপত্য ও নিদর্শন ঘুরে দেখার জন্য সাইকেল হল আদর্শ বাহন।

পন্ডিচেরী- ফরাসি কলোনি পন্ডিচেরীতে যেতে মন চায় অনেকেরই। কারণ এমন নিরিবিল ও শান্ত-পরিচ্ছিন্ন শহর এই ভূভারতে কোথাও নেই।মাতৃমন্দির, শ্রী অরবিন্দ আশ্রম, প্রোমেন্ডে বিচের চারিপাশে সাইকেল নিয়ে শহর চেনার আনন্দই আলাদা।

বেঙ্গালুরু- তথ্যপ্রযুক্তির রাজধানী হলেও এই শহরের রয়েছে অন্য এক পথচলার জীবন। রাত্রিজীবন ও শহুরের জীবনের স্পটলাইটের বাইরেও রয়েছে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে এক অজানা শহরের আত্মকথা। রয়েছে অসংখ্য মন্দি, মসজিদ, চার্চ, পার্ক। দুরন্ত শহর শুধু প্রযুক্তি হাবের কথাই শোনায় না, এই শহর সাইকেল-বান্ধবও শহর।

মন্তব্য করুন